Menu

কীভাবে পরীক্ষায় ৮০-৯০ শতাংশ নম্বর পাওয়া যায় তার জন্য বিশেষ পরামর্শ ।

তোমরা যদি চাও তো অনায়াসেই যেকোনো বার্ষিক পরীক্ষায় ৮০/৯০ Percent নম্বর পেতে পারো। হ্যাঁ তবে এমনিতেই কিন্তু এই নম্বর পাওয়া যাবে না, যার জন্য কিছু নিয়ম তোমাদের মেনে চলতে হবে। এখানে তেমনই কিছু বিশেষ পরামর্শ Share করবো তোমাদের সাথে

১) সর্ব প্রথমে তোমাকে punctual হতে হবে অর্থাৎ ভালো রেজাল্ট করতে গেলে একটা রুটিন তোমাকে মেনে চলতে হবে মানে প্রতিটা বিষয়ের জন্য সপ্তাহের একেকটা দিন বা দিনের একেকটা সময় বেছে নিতে  হবে। আর ওই বেছে নেওয়া দিন বা সময় অনুসারে তোমাদের সেই বিষয়টাকে পরতে হবে।

২) MCQ ও Short Question গুলোর জন্য তোমাদের text বই গুলোকে খুঁটিয়ে পরতে হবে কারন এটা বলা খুব কঠিন যে ছোট প্রশ্ন বা মাল্টিপল চয়েস প্রশ্নগুলো কোথাথেকে দিয়ে দেবে, যার জন্য টেক্সট বই খুঁটিয়ে পরা। এর ফলে কি হবে বিষয় সম্পর্কে তোমার স্পষ্ট জ্ঞান থাকবে এবং সহজেই উত্তর করতে পারবে।

৩) যেটা আগেই বলা দরকার ছিল সেটা এখন বলছি, যে প্রতিটা বিষয় পড়ার আগে আমদের সবার আগে তার syllabus সম্পর্কে স্পষ্ট জ্ঞান অর্জন করে নিতে হবে। আমরা যদি নাই জানি সারা বছর আমদের কি কি পরতে হবে তাহলে কি করে এগোতে পারবো। যার জন্য যে কোনো বিষয়ের সিলেবাস জানাটা আগে বিশেষ ভাবে জ্রুরি।

৪) নিজেকে নিজের বিচার করতে হবে অর্থাৎ যখন আমাদের মনে হবে যে আমার এই বিষয়টি পরা হয়ে গেছে, তখন নিজে নিজে পুরোটা আর একবার রিভাইস দিয়ে নিতে হবে এবং সবচেয়ে ভালো উপায় নিজেকেই নিজে একটা মহড়া পরীক্ষা নিতে পারো। যার জন্য তুমি কোনো প্রশ্ন বিচিত্রা বা অন্য কোনো প্রশ্নেরও সাহায্য নিতে পারো।

artsschool.in
artsschool.in

৫) সবশেষে বলবো নিজে তো পাঠ্য বই পরবেই আর যারা আমদের এই artsschool.in ব্লগ ফলো করো তারা সপ্তাহে অন্তত ৪ দিন নিয়ম করে আমাদের এই ব্লগের পোস্ট গুলি পড়ো কারন আমরা চেষ্টা করছি প্রতিদিন এই ব্লগে নতুন নতুন বিষয়ে প্রশ্ন উত্তর ও আলোচনা পর্ব যোগ করার, যেগুলো তোমাদের ভালো রেজাল্ট করার পক্ষে বিশেষভাবে সহায়ক হয়ে উঠবে।

৬) পরীক্ষায় ভালো নম্বর পাওয়ার জন্য নানা জন নানা রকম কথা বলে থাকেন, তবে আমার মতে ভালো নম্বর পেতে গেলে হুবুহু সহায়িকা বই এর বা প্রাইভেট মাষ্টারের দেওয়া নোটস এর কপি না করে নিজের মতেও কিছুটা লিখতে হয় এবং সর্বদা তোমার প্রশ্নের উত্তর যেন পর্ষৎ নির্দেশিত শব্দসীমার মধ্য থাকে।

৭) আর হ্যাঁ Self Confident হবে, কোনো স্যার বা প্রতিষ্ঠান এর সাজেশনের উপর নির্ভর না করে নিজেই নিজের সাজেশন তৈরি করে নেবে, যার জন্য নিজেকে আর একটু খাটতে হবে। প্রথমে তো টেক্সট বই ভালো করে পরবেই, তারপর টেস্ট পেপার বা অন্য কোথাও যদি পাও বিগত বছরের প্রশ্ন গুলো ভালো করে লক্ষ করেলেই তোমাদের ঠিক ধারনা হয়ে যাবে কি পরতে হবে আর কি না।

৮) আর এভাবে তুমি যদি সমস্তটা ঠিকঠাক ভাবে করতে পারো এবং পড়াশুনার জন্য নিজেকে একটা নিয়মে বেঁধে ফেলতে পারো তাহলে তোমার ভালো রেজাল্টের অন্তরায় বলে আর কিছু থাকবে না এবং বছরের শেষে জয়টা তমারি হবে।

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: